মেসবা আলম অর্ঘ্যর কবিতা

 

মেসবা আলম অর্ঘ্য ঢাকা থেকে কানাডায় প্রায় দেড় দশক। ২১:০ র লেখালিখির জন্ম আন্তর্জালেই। কৌরব অনলাইনে অঁর একাধিক কবিতা। প্রথম কাব্যগ্রন্থ কৌরব প্রকাশনী থেকে আমি কাল রাতে কোথাও যাই নাই (২০০৮)। এরপর তোমার বন্ধুরা বনে চলে গেছে (২০১১)। একাধিক কবিতার বই। অটোয়ার বাসীন্দা। পেশাসূত্রে সফটওয়্যার কারিগর। সম্প্রতি গানের দল গড়েছেন।

 

 

মেঝে

 

মাথায় ডুবে থাকা

হাতগুলি বুলিয়ে দিয়ে যায়

আলাদা, স্বাধীন

একটা একটা মিশ্র আঙুল

 

এরকম কথার জগৎ

এরকম চুপ করলাম

 

মৃদুমন্দ বয়ে চলে

কাঠের মেঝের স্রোতখানি

ফুলে ওঠে, শ্বাস নেয়

কাঠের মেঝের স্রোতখানি

তার গায়ে পদ্মাসন

 

কী এক হাওয়া যেন শূন্য হয়েছে

 

দেহচ্যুত, বয়ানবিহীন

কথার পরিপাশ এই

চাইলেই শোনা যাবে, বলা হবে

সহজ দেয়ালের ধারা

 

কার্পেটে এলোমেলো জোনাক

 

জ্বলে আর নেভে

 

 

শূন্যতা হলো

 

শূন্যতা হলো আমার শীতের কোট

ঘরে থাকলে পরতে হয় না

ঘরে অন্য জিনিস আছে

 

চুলায় পানি দিলে

গরম বাষ্প ওঠে

আগুনও সুন্দর

তখন কোট লাগে না,

কিন্তু বাইরে গেলে অনেক কষ্ট

 

শূন্যতা হলো আমার শীতের কোট

ঘরে থাকলে যাকে ভুলে থাকা যায়

 

 

 

অল্টার

 

কী নিপুণ পাতলুন

জড়িয়ে আছে গায়ে ও!

যেন আমি!

আমার অতল কোনো

দরজার ওপাশে

পায়ের আওয়াজ কী নিপুণ

জড়িয়ে আছে গায়ে!

 

কবে ভুলে গেছি

ওই অন্তর

মাথার বাম পাশে,

খুলির কিনারায়

ঠান্ডা কাচস্রোতে ভেসে যাওয়া

আমার কোনো বয়সের স্মৃতি

এখন যা একান্ত ওর

আমাকে প্রায় প্রায় বলে

 

 

সমতল দেশ

 

আমার যে সমতল দেশ

আমি যার এ'ধার ও'ধার করি

 

জ্ঞানী এক পিঁপড়া আমি

পেরিফেরি হতে, আড়াআড়ি

গুটিগুটি পৌছাই

আমার বিচরণ

 

যেই মাটির নিচে সরল এক মৃত্যু রয়েছে

শূন্যে ভাসছে অদৃশ্য সূতায়

অতল গিরিখাত

নেমে গেছে

পেরিফেরি হতে

আড়াআড়ি

আদিম কোনো ফারাও মমির

মুখমন্ডলের মতো

জ্ঞানী এক পিঁপড়া আমি

 

ভীষণ একাকী

 

 

Copyright 2020 Mesbah Alam Arghya Published 1st Apr, 2020.

 

gadha-transparent