কৌরব অনলাইন সংখ্যা ৫০

 

কবিতাকুণ্ডলী প্রস্তাবনা

 

যে জনমতে জীবন বৃত্তাকার সে মত সরলীকৃত; অতিরিক্ত সরলীকরণ সত্যকে বাস্তবতা থেকে এতটাই সরিয়ে রাখে যে তা প্রায় মিথ্যারূপেন। এই কবিতাচক্রের উদ্দেশ্য যেন সেই ভ্রমকেই চাক্ষুস করে তোলার এক চেষ্টা। জীবনের বৃত্ত নেই, কুণ্ডলী আছে। আছে এক ঘূর্ণমালা, কিন্তু সে এক বিন্দু থেকে শুরু হয়ে কোনো এক কেন্দ্রীয় শক্তির থেকে সমদূরত্ব রেখে, নিজের অক্ষকে জেনে, বুঝে এক পাক ঘুরে আসে না। বরং সে চলতে শুরু করে নিজের মতো।

 

এভাবে চলতে চলতে কিছুক্ষণ পর বোঝা যায় এক ঘূর্ণিতে পড়েছে সে, কোনো এক পাকে, বা দুর্বিপাকে তার নামচরিত্রই জীবন। যাকে ঘোরা মনে হয়, তা আসলে একটু এগোনো, পেছনো, বাঁকানো, ট্যারানো নিয়ে এক কুণ্ডলী। জীবন কুণ্ডলী আকার। আর সে জীবন, চিন্তাকে শ্যাডো করা কবিতাও। কবিতাকুণ্ডলী এই সত্যিকারের পরিবৃত্তটাকে ধরার এক পরীক্ষা Experiment

 

এই প্রকল্প শুরু হয় একজন কবির একটা কবিতা দিয়ে। সেটা কবিতামালার পরেরজনকে দেওয়া হয় নাম চেপে। সে প্রথম কবিতা থেকে লেখে দ্বিতীয়টা তার নিজস্ব মৌলিক লেখা। রিলে রেস চলতে থাকে। দ্বিতীয় দেয় তৃতীয়কে, তৃতীয় চতুর্থকে... এইভাবে। শেষ পর্যন্ত কবিতা ফিরে আসে প্রথম কবির কাছে। তিনি আবার লেখেন।

 

 

===


প্রিয় কবি

 

কৌরব অনলাইনের আগামী কোনো একটা সংখ্যার জন্য একটা কবিতা প্রকল্প প্রস্তাব করছি। এই প্রকল্পে আপনাকে আমন্ত্রণ জানানোর উদ্দেশ্যে এই চিঠি। প্রকল্পের নাম কবিতাকুণ্ডলী। এক বিশেষ কারণে প্রকল্পের সবটা participant কবিকে এখনই বলতে পারবো না। ক্রমশ প্রকাশ্য।

 

আপনাকে একটা কবিতা দেওয়া হবে। সেই কবিতা পড়ে, তার সাহায্যে আপনি নিজস্ব আর একটা কবিতা লিখে আমার কাছে পাঠাবেন। প্রকল্পের শেষে সমস্তটা আপনাকে দেখাবো, তখন আপনার একটা একপাতা natural response, আপনার নিজের লেখাটা নিয়ে, আমাকে লিখে পাঠাবেন। তারপর গোটা প্রকল্পটা আমি প্রকাশ করবো কৌরব পত্রিকায় বা জালিকায় বা দু জায়গাতেই।

 

একটা কবিতা (যার লেখকের নাম আপনাকে দেওয়া হবে না) থেকে আপনি কীভাবে নিজের লেখাটা তৈরি করবেন সেটা সম্পূর্ণ আপনার ওপর। তবে কোনো বিশেষ পদ্ধতি ভাবার চেষ্টা করলে ভালো হয়। সেটা মনে রাখবেন। কয়েকটা ইতিমধ্যে ব্যবহৃত ও অন্তত একটা কল্পিত টেকনিকের কথা নিচে বলছি

 

ক) Erasure technique অবলম্বন করতে পারেন। আমার থেকে পাওয়া কবিতার যে সব লাইন বা শব্দ মনে ধরছে সেগুলো রেখে, বাকি সব মুছে শুরু করতে পারেন নিজের লেখাটা। তার মধ্যে এই অমোছা লাইন ও শব্দ রয়ে যাবে।

 

খ) Compression technique যেখানে পাওয়া কবিতার কিছু নির্বাচিত অংশ সঙ্কুচিত করা হলো, বা থিম বা ভাবনা সঙ্কুচিত করা হলো; এই space crunchএ যে বাড়তি জায়গাটা এলো সেখানে আপনার নিজস্ব চিন্তা যোগ করলেন।

 

গ) Expansion technique কবিতার যে বিষয়ভাবনা বা থিম আপনার মনে ধরা দিলো সেই একই থিম অবলম্বনে আপনি আপনার লেখাটা তৈরি করলেন, ভিন্ন ধারায় নিয়ে গেলেন সেই বিষয়ে আপনার নিজস্ব চিন্তাবস্তুকে

 

ঘ) Kindling technique - অগ্নিসংযোগ পদ্ধতি পাওয়া কবিতার থেকে অন্তত একটা-দুটো (মনে ধরলে অনেকগুলো) আগুনের ফুল্কি খুঁজে নিন। তার থেকে নিজের লেখার মশাল জ্বালিয়ে নিন।

 

আপনার কবিতা আপনার হতে হবে। অনুরুদ্ধ বা প্রভাবিত কবিতা নয়। লেখা পাবার ২-৩ সপ্তাহের মধ্যে আমাকে আপনার লেখাটা দিতে পারলে খুব সুবিধে হয়। মনে রাখবেন প্রকল্পটা আপনার ওপর নির্ভর করে আছে।

 

শেষ কথা। Think of a spiral, even visually, as you writeআমাদের ও পার্শ্ববর্তী আকাশগঙ্গা আকারে কুণ্ডলী। ক্রমশ ছড়িয়ে যাচ্ছে যে কুণ্ডলী। এইটা একটু ভাবতে অনুরোধ করি।

 

 

সুজনসন্ধানে

 

আর্যনীল

 

১৬ই মে, ২০১৫