বিতা

সুস্মিতা পাল

 

===

 

 

 

 

প্রাপ্ত কবিতা

 

অন্তিমে এনে

 

অন্তিমে এনে

পোড়া নাভি থেকে আর জন্ম জাগে না...

মরে যায় শেষ বরফকুচি,ঘুমের ষ্টেশন

শ্যাওলা জমে জমে ঢেকে গেছে ছিন্ন শিরারা সব

মেধাময় ঘাম জড়িয়েছে শরীরের প্ল্যাটফর্মে

ঘুমিয়ে পড়ে যাপনের দিন!

সোনাটা শুনতে শুনতে যাত্রা শুরু হয় আমাদের

চিতাকাঠে লেখা হয় সমাপ্তি সিম্ফ্যনি,আদিম শ্লোক

আর লাস্ট পিডিএফ।

 

ঘড়িরা বন্ধ হয়ে যায়

শোক সব আছড়ে পড়ে আর্ত পাথরে

 

নকশাপাড়ের শাড়ি একা বসে

এলোচুলে গান গায়।

(অদিতি বসুরায়)

সুস্মিতার কবিতা

 

সুস্মিতা পাল

চাবির গর্ত দিয়ে তীব্র অনুর্বরতা। ব্যাগ্র

আয়তনেরা (নাভি চিপে) বরফ দিয়ে মাপা

ষ্টেশন ছাড়ায় :

 

তখন, সুঠাম খুলিগুলো একা একা খুলে রেখে ব্যাভিচারী

সোনা দাগানো কত শত বন্ধ কবর অপেক্ষায় বাঁচে

কোথায় কবে

 

শ্যাওলান্ন কাঠেরা চিৎকার করে বলেছিল,

ওড়া থেকে জন্ম জাগে আর তারপর

কচি ঘুম হাত মটকায় প্রলোভনে

 

ভুলে থাকার ব্যাকরণ ঘাম ধেয়ে আসে মেরু আঁকড়ে

এখন

 

সমাপ্তির আদিমে আবার কোথাকার এক !

 

আঁটি থেকে আট ঘাঁটি থেকে ঘাট সব দরজা ডিঙিয়ে সবুজ সূর্য এলোচুলে শিরা দাগে পাথরে পাথারে

 

কে কোথায় ছুঁড়েছিল ওম, মনে রাখে ব্রহ্মাণ্ডের সেই বিখণ্ড কণা।

 

কবিতা ভাবনাঃ

 

একটা পাকানো সিঁড়ি নিচের দিকে নামতে নামতে এক লাফে ওপর দিকে হাঁটতে থাকে। সেই অন্ত্র কোঁকড়ানো লাফে, শব্দ ক্ষয়ে যেতে থাকে। ঘড়ি থামিয়ে তখন আবার মাটির কাছে যাই। তখন আমার ছোট্ট সোনা কাগজ ছেঁড়ে। জন্ম জাগানো তখন এক নশ্বর ভাবনা মনে হয়। আবার শুরুতে শুরু অন্তিমে এনে। এবারে কাটা-ছেঁড়ার স্মৃতি নিয়ে কলমে ধার বাড়ে। মেথি ফোড়ন হয়ে দানা দানা এক একটা শব্দ উঠে দাঁড়ায়। পিছল হয়ে যায় ওঠা-নামার লয়।

 

সোনালি কুণ্ডল আঁকি মাঝে মাঝে। প্রতি পাকে বেড়ে ওঠে ঘের। প্রতি বাঁকে তফাত বাড়ে যতটা, শুরুর মেরুবিন্দু ততটাই প্রজ্জ্বলিত হতে থাকে। শব্দ তুমি ঝরে যাও হাত বেয়ে , বলেছিল কেউ। রোজকার নিয়মের ঢাল বেয়ে আসে কি তাই?

তখন এ লেখাও কি হতে পারে সেই কুণ্ডল? যা শুরু, তাই কি শেষ নয়? যা শেষ, তাতেই কি শুরু নেই? শুরু আর শেষ কি এক সাথেই নয়? উত্তর খোঁজার তালে লেখা বেড়ে ওঠে। মাঝে একটা ছন্দপতন মনে হয়, তবু অবিকার রেখে দি।

 

মুছে দিয়েছিলাম যে যে অক্ষর, তাদের দিকে ফিরে তাকালে একটা ফুল্কি দেখি। ধরতে পারি না ঠিক; আঙুল ফুটো করে বয়ে যায় তারা। এবারের লেখায়, সত্যি বলতে কি, আমি নেই। শব্দরা চয়ন করে নিয়েছে নিজেদের।এ সত্ত্বা শুধু সেই মুহুর্তের চোরা স্রোতের পাঠক।

 

===

 

Copyright 2016 Kaurab ONLINE Published 31st Dec, 2016.